পাবলিক পরীক্ষায় এবার ৩৩ নয় পাশ মার্ক হবে ৪০

Image result for ssc students image bd

নতুন শিক্ষাক্রম অনুযায়ী পাশ মার্ক ৩৩ নয় ৪০ এ করার কথা ভাবছে সরকার। যেহেতু কয়েকদিন আগেই ঘোষণা দেয়া হইছে এখন থেকে আর জিপিএ ৫ হবে না সেহেতু জিপিএ ৪ এর মধ্যে ৩৩ এ নয় ৪০ এ পেলে পাশ করানো হবে।
পাবলিক পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের বিপরীতে ৪০ এ পাশ মার্ক হবে বলে জানা গেছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় এ পদ্ধতি হাতে নিয়েছে।
একই সঙ্গে রেজাল্ট প্রকাশ পদ্ধতিতেও পরিবর্তন আনা হয়েছে বলে জানা গেছে। এবার জিপিএ ৫ এর পরিবর্তে (গ্রেড পয়েন্ট এভারেজ) ৪ এ হিসাব করা হবে।এ পদ্ধতিতে ‘এ প্লাস’ বলতে কিছু থাকবে না। পরীক্ষার ফলের আন্তর্জাতিক মানদণ্ডের সঙ্গে সমতা রাখতেই এসব পরিবর্তন আনা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

১১ টি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান এ নিয়ে কাজ করছে বলে জানা গেছে। আগামী ২৬ শে জুন তারা প্রতিবেদন জমা দিবে।
এর আগে গত ১২ই জুন শিক্ষা মন্ত্রী ড দিপু মণির সাতে বৈঠকে তারা এ সিদ্ধান্তে উপণীত হয়।

আরও পড়ুনঃ শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পেলে পরীক্ষা বাতিল

সভাসুত্র জানায় এ নিযে আামাদের মাজে বিশদ আলোচনা হয়েছে। আমাদের অভিভাবকে রা জিপিএ ৫ এর পিছনে ছুটছে কিন্তু বিশ্বের যেকোন দেশ তাদের রেজাল্ট জিপিএ ৪ এর মাধ্যমে প্রকাশ করে।

আগামী ২৬শে জুন আবারো সভা ডাকা হতে পারে বলে জানানো হয়।

পাশ মার্ক কেন বাড়ানো হচ্ছে এ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে একজন সচিব নাম প্রকামে অনিচ্ছুক শর্তে জানান যে ২০০১ সালে গ্রেডিং সিস্টেম চালু করার পর থেকে আমাদের দেশে পাশ এর হার বেড়েছে। আবার যদি পাশ মার্ক ৩৩ থেকে ৪০ এ বাড়ানো যায় তবে শিক্ষার মান নিয়ে যে প্রশ্ন গুলো রয়েছে তা আর থাকবে না। কারন তখন স্টুডেন্ট রা অনেক বেশি পাশ করার সুযোগ পাবে।কজন শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান বলেন ‘বর্তমান পদ্ধতির পরিবর্তন খুব জরুরি। এমসিকিউ, সিকিউ ও সৃজনশীল মিলে একই বিষয়ে তিনজন পরীক্ষক তিন রকম নম্বর দিচ্ছেন। তা যোগ হয়ে ফল তৈরি হচ্ছে। এটি সঠিক নয়। একটি গ্রেড পয়েন্ট থেকে অপর পয়েন্টের মধ্যে নম্বরের পার্থক্য খুব বেশি থাকায় আমার নিজের ছেলেও জিপিএ ৫ পায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*